কবিতা

ঈশানকোণ একটি সাহিত্যের ওয়েবজিন হেমন্ত সংখ্যা নভেম্বর ২০১৬ ইং 

সুযোগ পেলেই

সুব্রত দেব


সুযোগ পেলেই আমি খুলে ফেলতে চাই।

খুলব বলে আমি তরে তরে বসে থাকি

রাতের পর রাত।

বিন্দুমাত্র সুযোগ আসে না তাই 

হাত কামড়াই আমি

পা কামড়াই

কামড়ে কামড়ে রক্তাক্ত করি সমস্ত শরীর।

দেখেও দেখে না কেউ, শুনেও শোনে না।

সবাই অন্ধ ও বধির সেজে বসে আছে আজ

ধড়িবাজ মালিক যেমন নাচায় তাদের, তেমনি নাচে!

কে বা কারা খুলে ফেলতে চায় তার দিকে সবার

কড়া নজর।

ইচ্ছে থাকলেও তাই খুলতে পারি না আজ

যদিও সুযোগ পেলেই আমি

খুলে ফেলতে চাই।



প্রার্থী

সুব্রত দেব


বছরের পর বছর অপেক্ষা করেছি আমি।

ধুনি জ্বালিয়ে বসে থেকেছি দিনের পর দিন

ভুলেও কেউ ত্রিসীমানায় মাড়ায়নি।

এখন ঠিক করেছি, নিজে থেকেই যাব।

পর্বত মোহম্মদের কাছে না-গেলে

মোহম্মদকে তো পর্বতের কাছে যেতেই হবে।

তবে মাঝেমাঝে মনে হয়, কেনই বা যাব

আমার তো কোন প্রাথর্না নেই।

প্রাথর্নার জন্য যারা বেঁচে থাকে

তাদের যেতে হয়।

কিছু পাক না পাক তারা যাক।

অন্ততঃ উচ্ছিষ্টটুকু তো কুটে খেতে পারে।

কিছু না-জোটার চেয়ে এও ভালো।

কে কখন আলো হাতে আসবে তার জন্য

শবরী প্রতীক্ষায় বসে থাকা অর্থহীন।

ঝুলির ভেতরকার বেড়াল সামলাতে

প্রত্যেকেই হিমসিম খাচ্ছে রাতদিন।

কীভাবে আসবে তবে

আর কেনই-বা আসতে যাবে আমার কাছে,

আমি তো প্রার্থী নই।



ক খ গ

সুব্রত দেব


ক, খ-র ওপর ক্ষুব্ধ; খ গ-র ওপর।

সবাই সবার ওপর ক্ষুব্ধ। 

ক্ষুব্ধ বলেই কেউ নিজে থেকে কুটোটি পর্যন্ত নাড়ে না।

নাড়ে না বলেই ইচ্ছাপুর এক্সপ্রেস

একই প্ল্যাটফর্মে দাঁড়িয়ে থাকে

দিনের পর দিন

মাসের পর মাস

বছরের পর বছর। 

                                                           HOME


এই লেখাটা শেয়ার করুন