free website maker software

কবিতা            Home       
সৌভিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দুটি কবিতা



বারোতলার গ্রুপ-ডি বসন্ত


অফিসের বারোতলার ছাদে উঠে বসেছিল বসন্ত,
ছাদ ঠিক নয়, ছাদের কার্নিশে –
নীচে ছুটন্ত কোলকাতা
নীচে ফ্রী-ফল ডালহৌসি,
সন্ধ্যা হয় হয়।

কার্নিশে বসাটা তো রিস্কি
কেন উঠল বসন্ত ওখানে ?
ওখানে খোলা হাওয়ার মত শ্বাস –
বসন্ত বলেছিল পরে।

দমকলে খবর দেওয়া হয়,
পুলিশের তদন্ত নামবে ছাদে এক্ষুণি,
তার আগেই অবশ্য ফিরে এসেছে বসন্ত –
চোখ লাল, চুল আবোল-তাবোল।

ট্রেনে চাপিয়ে বসন্তকে আমরা
ফেরত পাঠালাম দেশের বাড়িতে,
কাজে ফিরলাম সবাই।

বসন্ত ভালো নেই আসলে,
বসন্ত মেন্টাল পেশেন্ট, আত্মহত্যাপ্রবণ,
গ্রুপ-ডি-র কাজে রাখা যাবেনা আর।

বসন্ত মরে যাচ্ছে ধীরে ধীরে,
আমরা কিছুতেই আটকাতে পারছিনা,
ঘড়ির কাঁটায় চড়ে, আমাদের বসন্ত শীতঘুম হয়ে যাচ্ছে রোজ শহরে,
আটকাতে পারছিনা।



ওল্ড দীঘা


মেঘদিবস পালন করি রোজ
অ্যান্টেনায় আটকে আছে ঘুড়ি
ধূসর ছাদে সামুদ্রিক হাওয়া

ওল্ড দীঘায় ঝড় উঠলো বুঝি

সিল্ক চুলের টুকরো টুকরো ছবি
হঠাৎ এসে ঝাপটা মারে মুখে
দু হাত দিয়ে চুল সরিয়ে দেখি

অ্যান্টেনায় আটকে আছে ঘুড়ি
হাজার বছর থমকে আছে শহর

অনেক জীবন জমিয়ে জমিয়ে তবেই
একটা মৃত্যু আঁকতে পারা যায়

মেঘদিবস পালন করি রোজ

ওল্ড দীঘায় বৃষ্টি নেমেছিল



                                                  HOME

[এই লেখাটা শেয়ার করুন]